রূপকথা

সমান্তরালে দুইটি প্রাণ চলে কী অদ্ভুত, কী বিস্ময় হৃদপিন্ডের দামামা একই ছন্দে বাজে। আমার বট গাছটি মুরোলো অফুরন্ত শিল্পের মতো আমার গল্প কি ফুরোলো? বাস্তবে কিছু গল্পের শেষ থাকে না যেমন জীবন অথবা একটি নতুন প্রাণ একটি অশেষ গল্পের নাম; আমিও শক্তির মতো, ঈশ্বরের মতো তাকিয়ে দেখেছি এক মহিরুহ আমি, প্রচণ্ড বিস্তার; আমার ২৩ টা…

Details

অন্যভাবে

বলো যদি, তবে অন্যভাবে বল
ঠিক কঠিন চোখ করে আর একবার
চোখের দৃষ্টিতে ভষ্ম করে ফেল
আমার সকল অহংকার।
ভালোবাসি বলেই তবে আমার সাজঘর
প্রতিটা ভাঁজে জমা আছে অসংখ প্রসাধন
যদি নিশ্বাস নিতে চাও, অন্য ভাবে নাও
প্রথম মৃত্যুর মতো, নিষ্পলক কিছুক্ষন
বুকে নিয়ে মমতায় আমাকে সাজাও।

অবাক সবাক

ঝড়ের তাণ্ডব যেমন
অবাক, সবাক
কিছু শুয়োপোকা ভেবে দেখে
ভিতরে, অন্তর আর তারো গভীরের প্রতিটা কোষ
কি বিস্ময় চারপাশ,
প্রতিটা বিক্ষভের পর সব একাকার
আদতে পার্থক্য নেই, মানুষ এবং ঘাস
মানে আমাদের ডিএনএ তাই বলে।

সময়ের বৃষ্টি অসময়ে

প্রথম বৃষ্টির মতো, চিরচেনা এবং অচেনা
তবুও মেঘের কথা ভাবি, ঝরের গুঞ্জন
আমাদের পথের অনেক অজানা বাঁকে
পায়ে হেঁটে অথবা গড়িয়ে যাই সামনের দিকে
এ জীবন শেষে, পথের শেষে, সময়ের শেষে
আমৃত্যু বৃষ্টির প্রতিক্ষায় থেকে যায় কিছু প্রাণ;
আমার অযুত নিযুত বেলায়
কাহার বাঁশি এখন এই অসময়ে বেজে যায়?

চলো

“ঘুমোও তুমি, ঘুমোও তুমি” বলছে না কেউ হঠাৎ করে? কেউ আমাকে ডাকছে না কেন, আসতে বলে অনেক ভোরে? এসব কথা ভাবতে ভাবতে সূর্যিমামার উদয় হয় এক্কেবারে মরেই যাব, এই ভাবনারই হয় ভয়। অনেক ভোরে আলতো পায়ে ঘাস মাড়িয়ে যেতে চাই এই শহরের হট্টগোলে চলো বসে ফুসকা খাই। গড়ুক বেলা, পড়ন্ত দিন, কে কার হিসেব নিচ্ছে…

Details

আমার অক্সিজেন

কী অসম্ভবের দশা, নিশ্বাসের অক্সিজেন কঠিন লোহাকেও মরিচা ফেলে দেয়; যারা নিশ্বাস নিয়ে স্বপ্ন দেখি বা দেখাই লৌহ মনকে মরিচা থেকে বাঁচাই, কোথায় জানি বোবা কান্না থেকে যায়। হে আমার আকাশ রাঙা মেঘ তোমার বুকে বৃষ্টি আছে জানি আমার হৃদয় মরচে পরা লাল জ্বলুক পুরুক ক্ষতি নেই তবু একটু শুধু লাগবে এখন জল। জলের মাঝেও…

Details