একটেল থেকে রবি: একটি প্রতারণার গল্প

একটেল থেকে রবি: একটি প্রতারণার গল্প

আমি একটেল (এখন রবি) ব্যবহার করি ২০০০ সাল থেকে। সেই সময় বড়সড় একটা ফোন ছিল। মোবাইল ফোনে তখন ইন্টারনেট ছিল না। ছিল না পলিফোনিক রিংটোন। মোবাইল মানেই ছিল সিমেন্স, মটোরোলা এবং পরে নকিয়া। এই প্রায় ১৪ বছর আগের স্মৃতি হাতড়াতে গিয়ে নস্টালজিক হয়ে গেলাম। তবে এই লেখার উদ্দেশ্য স্মৃতি হাতড়ান নয়। অনেক বিরক্তি নিয়ে আজকের আয়োজন।

আমি কখনো রবিতে ইন্টারনেট ব্যবহার করি নি। গ্রামীনফোনের ইন্টারনেট ব্যবহার করতাম (কাভারেজ ভালো)। শুধুমাত্র ঢাকার বাইরে গেলে এই ইন্টারনেট প্রয়োজন হয়। বাসায় বা অফিসে ডেডিকেটেড কানেকশন। তাই মোবাইলের ১/২ এমবিপিএস’র দরকার হয় না।

আমি প্রথম বারের মতন রবিতে ইন্টারনেট এক্টিভেট করলাম গতমাসে। পরীক্ষামূলক ভাবে ৫০০মেগাবাইট ডাটা কিনে নিলাম। এবং কয়েকদিন পর খেয়াল করলাম আমার একাউন্ট থেকে টাকা কমে যাচ্ছে। বাধ্য হয়ে ওদের হেল্পলাইন ১২৩ এ ডায়াল করলাম। এবং অপারেটর জানালেন আমার প্যাকেজটা শুধুমাত্র রাত্রের জন্য। আমি অবাক হলাম। কারন সার্ভিসটি এক্টিভেট করেছিলাম *৮৪৪৪# পুশ সার্ভিস থেকে। এবং সেখানে একবারও বলা হয়নি যে প্যাকেজটি ছিল রাতের! সম্ভবত প্যাকেজটির দাম ছিল ৫০ টাকা। তাই মাফ করে দিলাম। এবং ২ গিগাবাইটের নতুন একটি প্যাকেজ কিনলাম। ভালোই চলল। রবি’র থ্রিজি বেশ ভালো।

গত কয়েকদিন আবারো লক্ষ্য করলাম আমার একাউন্ট থেকে প্রায় ৪০০ টাকা হাওয়া। কারন বুঝতে ১২৩ এ ডায়াল করলাম। এবার আরো চমকপ্রদ তথ্য। আমাকে জানানো হলো এই প্যাকেজটি ১+১ জিবি’র। মানে হলো দিনের বেলা ১জিবি এবং রাতে বেলা ১ জিবি। আমি প্রচণ্ড রেগে গেলাম। এই রকম অভিনব বিষয় আমার পরিচিত নয়। তার উপর আমি কিছুই জানি না। যখন সার্ভিসটি একটিভেট করি, আমাকে এসএমএস’এ কিছুই জানানো হয়নি।

একটু আগে আমি আমার লিগ্যাল কাউনসিলরকে সিসি দিয়ে বিটিআরসি তে একটা মেইল লিখলাম। এই বিশাল প্রতারণা বন্ধ করা দরকার।

প্রিয় রবি, আমি অবশ্যই তোমার সার্ভিস ব্যবহার করব। কিন্তু এই প্রতারণা সহ্য করব না।

আমি নিজেকে স্মার্ট এবং টেকনোলজি’র মানুষ হিসেবে দাবী করি। আমার ক্ষেত্র যদি এই অবস্থা হয় তাহলে চমকপ্রদ বিজ্ঞাপন দেখে গ্রাম থেকে যখন কোন নবীন ব্যবহারকারী এই সমস্যায় পড়বেন তখন কি হবে।

এখন প্রশ্ন মনে রবি প্রতিদিন এই প্রতারণা থেকে মোট কত আয় করে? আমার ফিনান্স জ্ঞান খারাপ। কেউ সাহায্য করবেন?

আমি এখন ক্লান্ত অনেক

আজকে সারাদিন অনেকটা ঘোরের মধ্যে কেটে গেল। ঘোর বলা ভুল। বলতে হবে অনেক কিছুতেই কেটে গেল। গত কয়েকদিন থেকে ডেটা সেন্টারের জঞ্জাল সাফ করছিলাম। আজকে ছিল শেষ দিন। নিজেদের বসানো ২৪ কোরের ফাইবার অপটিককে ওডিএফ-এ বসানো হলে আজকে। আর সব আই এস পি গুলোনকে বলা হলো আমাদের নিজেদের ব্যাম্বোতে সংযোগ করতে। আসলে এতো বেশী ক্যাবল দেখতে আর ভালো লাগছিল না। এখন অনেক ঝকঝকে লাগছে আমাদের নেটওয়ার্ক।

রাত ১২ টার পর যখন কালি-ঝুলি মাখা শরীরটা নিয়ে নেটওয়ার্কের পারফর্মমেন্স দেখা শুরু করলাম, মনটা ভালো হয়ে গেল।

সন্ধ্যের দিকটা অনেক ভালো কেটেছে। ধন্যবাদ ইমতিয়াজ মাহমুদ এবং মুস্তাক ভাই। আপনাদের জন্য এই অগোছালো সময়টা একটু ভালো কাটলো।

আর আমার বউকে ধন্যবাদ সুন্দর সুন্দর খাবারের জন্য।

 

WordPress MultiSite to Single Site

WordPress MultiSite to Single Site

I was searching for a solution to convert WordPress multisite to single site (default). Found lots of article which was helpful but somehow didn’t finish their steps. However I did solve this issue. Here what I did.

  1. I took the backup from the multisite instance using the export tool of WordPress. Did that for the particular site to be converted into single site.
  2. Backed up the whole multisite folder.
  3. Delete the multiste folder from server.
  4. Drop the database tables.
  5. Install the new wordpress (fresh install).
  6. Upload the wp-uploads, themes, plugin folder.
  7. Import the wordpress .xml file which was exported from particular multisite.
  8. Check Download images from link.
  9. I am done.

The trick is when the importer looking for the linked image it will find the server has the image location same so the system simply maintain the image link in the database.

Then just activated the desired theme with my plugins.

wordpress-multisite

অবশেষে সার্ভার ঠিক করলাম

অবশেষে সার্ভার ঠিক করলাম

হোস্টমন্সটার ব্যবহার করছি ২০০৬ সাল থেকে। প্রিয় বন্ধু রইসুলের (রুমান) দেখে ওর কাছ থেকেই কিনে নিয়ে ব্যবহার শুরু। অনেক সস্তা তাই আমার একাউন্টটা হয়ে যায় পুরো একটা হোস্টিং ম্যাসাকার। বন্ধু-বান্ধব, ক্লায়েন্ট সবার সাইট এখানে বিনামূল্যে হোস্ট করা। এই বিশাল মহত্বের কারনে এখন নিজের ব্লগটাই ঠিকমতোন আসে না (শেয়ারড সার্ভার, সস্তা)।

তাই আজকে নিজের সাইটটাকেই নিজের ডাটাসেন্টারে সরিয়ে ফেললাম। যাকে বলে সিএনজি অটোরিক্সা থেকে সরাসরি পোর্সেতে চলে যাওয়া। দেখি এখন এই উত্তেজনায় দিনকয়েক লিখতি পারি কিনা।

যেহেতু অনেক রাত জেগে এই কাজ করতে হলো তাই বলার অপেক্ষাই রাখে না যে আমার বউ ভয়ঙ্কর রেগে আছে। তাক খুশি করার জন্য একটা ছবি পোস্ট করলাম।

_MG_9399

না একটি বাক্য

না একটি বাক্য

Untitled-1

“না”
এই একটি ধ্বণি বা শব্দ এখন বাক্য;
আমি না বাক্যেই বলে দিতে পারি এ রায় আমি মানি না।
যদি ভাবো আমি বিড়াল, আদরের নরম পরশে গুটিশুটি মেরে
তোমার পায়ের কাছে বসে ঝিমুবো; বড্ড ভুল হয়ে যাবে।
যারা পূর্নিমার রাতে হাত ধরে মুগ্ধ হয়ে চাদোয়ায় ভাসে
তারা কিন্তু সূর্যের প্রখরতাও জানে
আমাদের নখরে নখরে চেয়ে দেখ কেমন করে শানিত হয়ে আছি
ফরমালিনে ঢাকা চেতনা থেকে বেড় হয়ে আসো
নইলে সুন্দর কাচের জার ভেঙে যাবে আঁচড়ে।
না।
এ রায় মানি না।