সবচেয়ে প্রিয় শিল্পী, প্রিয় গান এবং প্রিয় গীতিকার

আমার তিন প্রিয় বিষয় এক সাথে এই গানে। শচীন কর্তা’র গান। গীতিকার মীরা দেব বর্মন। কতবার গানটা শুনেছি সেই হিসেব অনেক পড়ে বরং বলা উচিত দিনে কতবার শুনি! অনেক গান আছে যেগুলো কিছুদিন পড়ে আর ভালো লাগে না বা হঠাত হঠাত ভালো লাগে। এই গানটা অনেক ব্যতিক্রম। যতদিন যাচ্ছে নতুন নতুন ভাবে এই গানটার প্রতি ভালোবাসা তৈরী হচ্ছে। এই পৃথিবীর শ্রেষ্ঠ প্রেমের গান এটি। গানকে ভালোবেসে ঘর বাঁধলে এটি সম্ভব।

১৯৩২ সালের দিকে কর্তার গানের গুরু ছিলেন ভীষ্মদেব চট্টোপাধ্যায়। গুরুর থেকে বয়সে ২-৩ বছরের ছোটো ছিলেন তিনি। সেখানেই পরিচয় ভীষ্মদেবের আর এক কৃতী ছাত্রী মীরা দাশগুপ্তর সঙ্গে। ১৯৩৮ সালে বিয়ে করেন এই গুনী দম্পত্তি।

0_marriage

২৭ জুন ১৯৩৯ এ জন্ম হয় রাহুল দেব বর্মন এর। পরবর্তিতে স্বামী এবং ছেলের নেপথ্যে থেকে কখনো সামনে আসেন নি মীরা দেবী। অন্তরালেই থেকেছেন সব সময়। লিখে গেছেন কিছু বিখ্যাত গান। যে গানগুলন সবাই শুনেছেন। কিন্তু কখনো জানতে পারেন নি গীতিকার কে। মীরা দেবী’র বিখ্যাত কিছু গান হলো:

  • ঘাটে লাগাইয়া ডিঙ্গা পান খাইয়া যাও বাঁশী
  • তাকডুম তাকডুম বাজাই
  • নিটোল পায়ে রিনিক ঝিনিক
  • বর্ণে গন্ধে ছন্দে গীতিতে
  • রঙিলা রঙিলা রঙিলা রে রঙিলা
  • কে যাস রে ভাটি গাঙ বাইয়া

এখন মনে হয় অনেকেই চোখ কপালে তুলে বলছেন “আরে এই গান গুলন এনার লেখা?”। প্রথমবার আমার এমনই মনে হয়েছিল। অবস্য গানগুলোর যে অদ্ভুত দোলা তার জন্য শচীন কর্তা অনেক বেশি মনোযোগ আকর্ষণ করে। সব গুলো গানের সুরকার তিনি।

গানের সংসার। সত্যিকারের গানের বসবাস। যতবার বর্ণে গন্ধে শুনি ততবার চোখ ভিজে যায়। এত সুন্দর প্রেমের গান আর পৃথিবীতে তৈরী হবে না। হওয়ার উপায় নাই। যতবার এই গান শুনি ততবারই মনে হয় আমি প্রচন্ড ভাবে প্রেমে পড়ে আছি। কিন্তু কার প্রেমে পড়েছি বা পড়ে আছি এটা কখনো মাথায় আসে না। কিন্তু এই যে প্রেম প্রেম নেশা, এই যে আকুলতা বা এই যে উথাল পাথাল ভাবনা, এটা অনেক পবিত্র। এই পবিত্রতা নিয়ে থাকতে আমার ভালো লাগে। ইট কাঠের এই শহরে প্রত্যেকদিন প্রেমে পরছি এই গানটার জন্য। আহা! কি সৌভাগ্য আমার।

২০০৬ সালে একবার আমার মাথা খারাপ হয়ে গেলো। আগস্ট মাসে। এই গানটা মাথার মধ্যে ঢুকে গেলো। বের হয় না। অফিস এ, বাসায়, রাস্তায় এবং ঘুমের মধ্যেও এই গানটা শুনেছিলাম। মাথা খারাপের দশা ছিলো ৯ দিন। তারপরে অনেক কড়া ঘুমের অষুধ খেয়ে ঘুমিয়েছিলাম পুরো একদিন। তবেই রক্ষা। সেই ঘটনার পড়ে কিছুদিন গানটা শুনতে ভয় পেয়েছিলাম। পাছে আবারও আটকা পড়ে যাই!

একটা গান কত সহজে আমাকে রোমান্টিক করে দিতে পারে। একটা গান কত সহজে মনে করে দিতে পারে যে আমি প্রেমের মধ্যেই থাকি। একটা গান কতটা সহজে প্রমান করে দেয় যে আমার এখনো মৃত্যু হয় নাই। একটা গানের এত বড় শক্তি? একটা গান এত বড় স্বপ্ন দেখাতে পারে! প্রত্যেকদিন মনে করিয়ে দেয় যে পৃথিবীটা অনেক রোমান্টিক, পৃথিবীটা অনেক সুন্দর!

একজন মানুষ কতটুকু রোমান্টিক হলে এমন করে ভাবতে পারেন? লিখতে পারেন? কি সুন্দর ভালোবাসার উপস্থাপন! কি সুন্দর কথামালা! চোখে জল কি আর এমনি আসে?

আমি মনে প্রাণে বিশ্বাস করি গান হচ্ছে মানুষের সৃষ্ট সবচেয়ে বড় শিল্পকর্ম। আর এই গানটি পৃথিবীর সেরা সৃষ্টি। আমি অনেক ভাগ্যবান যে এই সেরা কাজটি আমার ফোনে এ, কম্পিউটার এ, আইপড এ এবং আমার মিউজিক সিস্টেম এ। ধন্যবাদ টেকনোলজি।

বর্ণে গন্ধে ছন্দে গীতিতে
হৃদয়ে দিয়েছ দোলা
রঙেতে রাঙিয়া রাঙাইলে মোরে
একি তব হরি খেলা
তুমি যে ফাগুন রঙেরও আগুন
তুমি যে রসেরও ধারা
তোমার মাধুরী তোমার মদিরা
করে মোরে দিশাহারা

মুক্তা যেমন শুক্তিরও বুকে
তেমনি আমাতে তুমি
আমার পরানে প্রেমের বিন্দু
তুমিই শুধু তুমি

প্রেমের অনলে জ্বালি যে প্রদীপ
সে দীপেরও শিখা তুমি
জোনাকি পাখায় ঝিকিমিকি নেচে
এ হৃদি নাচালে তুমি
আপনও হারায়ে উদাসি প্রানের
লহ গো প্রেমাঞ্জলি
তোমারে রচিয়া ভরেছি আমার
বাউল গানের ঝুলি

চমকি দেখিনু আমার প্রেমের
জোয়ারও তোমারই মাঝে
হৃদয় দোলায় দোলাও আমারে
তোমারো হিয়ারই মাঝে
তোমারও প্রানের পুলক প্রবাহ
নিশীতে চাহে আমাতে
জপ মোর নাম গাহ মোর গান
আমারি একতারাতে

বিমূর্ত এই রাত্রী আমার

আমার অনেক প্রিয় একটি গান। গানটা প্রথম কবে শুনেছি এটা বলতে পারব না যেমন ভাবে আমি বলতে পারিনা আমি প্রথম কবে গান গাওয়া শুরু করেছি। অবসরে, ক্লান্তিতে, ফুর্তিতে আমি গান গাই। গান গাই যখন কষ্টে থাকি, যখন স্বপ্ন দেখি। আসলে আমার সময়গুলো গানময়। গানে গানে কাটে সারাসময়। এখন পর্যন্ত যে গানগুলি আমি সর্বাধিকবার শুনেছি এ’টি তাদের একটি। গানটির গীতিকার কে আমি জানি না তবে সুরকার ভূপেন হাজারিকা (সম্ভবত)। গানটির দু’টা ভার্সন আছে। একটি ভূপেন হাজারিকার গাওয়া অন্যটি আবিদা সুলতানার (সঞ্চারি অংশটুকু)। আমি দুটি ভার্সন শুনে গানটি এখানে পোস্ট করলাম। অনেকেই হয়তো খুঁজে থাকবেন।

আমার এক বন্ধুর এই গানটি অনেক প্রিয়। এই গানের কথা উঠলেই ও বলত এটার চরম একটা ভিডিও বানাবে। আমি হাসতাম। আমার বন্ধুটি কিছুদিন আগে বিয়ে করেছে। তার রাত্রিগুলোন বিমূর্ত হয়ে থাক সারা জীবন। এইতো জীবনের গান! দিহান এই গানটা তোমার জন্য।

মূল অসমীয়া কথা ও সুর: ভূপেন হাজারিকা
বাংলা অনুবাদ: শিব্‌দাস বন্দোপাধ্যায়
কন্ঠ: আবিদা সুলতানা
ছবি: সীমানা পেরিয়ে

বিমূর্ত এই রাত্রী আমার,
মৌনতার সুতোয় বোনা
একটি রঙিন চাদর;
সেই চাদরের ভাজে ভাজে
নিশ্বাসেরি ছোঁয়া
আছে ভালোবাসা আদর।

কামনার গোলাপ রাঙা
সুন্দরী এই রাত্রীতে
নিরব মনের বরষা
আনে শ্রাবন ভাদর
সেই বরষার ঝড়ঝড়
নিশ্বাসের ছোঁয়া
আর ভালোবাসা আদর।

ঝরে পরে ফুলের মতোন
মিষ্টি কথার প্রতিধ্বনি
ঝরায় আতর
যেন ঝরায় আতর
পরিধিবিহীন সঙ্গম
মুখে নির্মল অধর
কম্পন কাতর;
নিয়ম ভাঙার নিয়মে যে
থাকনা বাঁধার পাথর
কোমল আঘাত প্রতি আঘাত
রাত্রী নিথর কাতর।

দূরের আর্তনাদের নদীর
ক্রন্দন কোন ঘাটের
ভ্রক্ষেপ নেই পেয়েছি আমি
আলিঙ্গনের সাগর
সেই সাগরের ছ্রোতে আছে
নিশ্বাসেরি ছোঁয়া
আর ভালোবাসা আদর।

এত-দিন-যে-বসে-ছিলেম

?? ????? ????????????? ???????? ?????? ????????? ???? ???? ??????? ???? ???? ??? ??? ?????? ?????? ?????? ???? ????? ???????? ?????? ????????? ?????? ???? ?????? ??????? ????? ??????? (???? ???? ????? ????????? ???? ?????? ???? ????)? ???? ??????? ???????? ??????? ??? ??? ????? ?? ?????? ??????? ??????? ?????? ?? ???????? ???? ???? ???????? ?????? ??????! ?????? ????????? ???? ??? ????? ????????’? ?????? ???????? ??? The Cycle of Spring ?? http://manybooks.net/support/t/tagorera/tagorera2460724607iliad.pdf ???? ???? ??????? ??? ??? ????? ?? ?? ?????? ?????? ??? The Songs of Fresh Beauty.

Etodin Je Boshe Chilem

????? ?? ???????? ?? ???? ?? ??? ????
???? ????? ?????????
???? ????? ???? ???? ???? ???????–
? ?? ?? ???????
???? ??? ???? ???? ??? ?????
????? ???? ?????? ???  ??? ????? ??????,
????? ????? ?????????? ???????
???? ????? ????? ????? ???? ???? ??–
? ?? ?? ???????
?????? ????? ???? ??? ????? ?????

THE SONG OF FRESH BEAUTY

We waited by the wayside counting moments till you appeared in the April morning. You come as a soldier-boy winning life at death's gate,-- Oh, the wonder of it. We listen amazed at the music of your young voice. Your mantle is blown in the wind like the fragrance of the Spring. The white spray of malati flowers in your hair shines like star-clusters. A fire burns through the veil of your smile,-- Oh, the wonder of it. And who knows where your arrows are hidden which smite death?

???? ?????? (???? ???????????) ????? ??????? ???????? ???? ???????? ????????????? ???? ???? ???, ??? ???? ????? ??? ????? ??? ????? ???????????!

???? ??? ????? ?? ???? ??? ????
?????????-???-?????? ?? ?????? ???? ?
???? ??? ????? ????,  ????? ‘??? ??? ???? ??,
????? ????????? ???? ???? ??????? ?
?????? ??? ????? ???? ???? ?????? ???,
???? ???? ????? ???? ???? ???? ????
???? ???? ????????    ???? ???? ????? ???? ??,
???? ?????? ???????? ???? ?????? ?

??????????? ???????? ??? ??????? ????? ???? ?? ????? ???? ???? ??????? ?????: http://tagoreweb.in/ ????? ????? ?????? ????? ??????????? ????????? ???????!

??? ?????? ??????????? ????? ???? ????? ????? ??? ?????? ???? ?????? ????? ??????? ?????????? ???? ??????? ???? ????

যদি বলি প্রেমে পরেছি অথবা পরেছে সে!

আমার ইদানিং সময়টা বড় বেয়াড়া। মানে আমি কোন কিছুকে নিয়ন্ত্রণ করতে পারছি না। কেমন যেন ঘোর লাগা ভাব। প্রচুর আড্ডাবাজি করছি, গান শুনছি। অনেকের সাথে দেখা হচ্ছে, দেখা হতে হচ্ছে। শুধু নিজের প্রফেশনাল কাজটা কম হচ্ছে। আমি কি হা হুতাস করব? আমি কিন্তু করছি না। হোক না একটু অন্যরকম।

গত কয়েকদিন থেকে যাও পাখি বল তারে শুনছি।

সোনারো পালঙ্কের ঘরে

লিখে রেখেছিলেম তারে

যাও পাখি বল তারে

সে যেন ভোলে না মোরে

সুখে থেকো ভালো থেকো

মনে রেখ এ আমারে।

বুকের ভেতর নোনা ব্যাথা

চোখে আমার ঝড়ে কথা

এপার ওপার তোলপাড় একা

যাও পাখি বল তারে

সে যেন ভোলে না মোরে….

মেঘের ওপর আকাশ ওরে

নদীর ওপার পাখির বাসা

মনে বন্ধু বড় আশা।

যাও পাখি যারে উড়ে

তারে কইয়ো আমার হয়ে

চোখ জ্বলে যায় দেখব তারে

মন চলে যায় অদূর দূরে

যাও পাখি বলো তারে

সে যেন ভোলে না মোরে..

সোনারো পালঙ্কের ঘরে

লিখে রেখেছিলেম নারে

যাও পাখি বল তারে

সে যেন ভোলে না মোরে

সুখে থেকো ভালো থেকো

মনে রেখ এ আমারে।

মনের আনন্দে শুনছি। এখনো বিরক্ত লাগছে গানটার উপর। এই লেখাটা শুরু করেছিলাম ৩দিন আগে। আজকে শেষ করছি। ৩দিন আগে ঘোর লাগা ভালোবাসায় শুরু করেছিলাম, আজকে ঘোর নেই তাই শেষ করব। এখন এই যে সুন্দর সকাল, এখন আমার মন শান্ত তাই আমি জানি আমি অনেক গভীর প্রেমে আছি। এই প্রেম ঘোরের প্রেম নয়, জীবন বোধের প্রেম। জীবন নিয়ে আমার পরীক্ষা করার সময় আর নেই।

আমার বন্ধু মুনেম ওয়াসিফ আমার ব্লগিং নিয়ে খুবি বিরক্ত। মুনেম আমি এইগুলান বস্তুই ব্লগে লিখি। এটা আমার এক ধরনের আশ্রয়। এই আশ্রয়টুকু আমার দরকার। আমার প্রতিভা অনেক কম ভাই।