সেই বছর অনেক বসন্ত ছিল

বৃষ্টি হচ্ছে, ভাল লাগছে
অথচ ছোটবেলায় রচনা লিখতাম বসন্তকাল।
সব ঠিক উল্টোটা হয়,
আমার পিছনে একটা দেয়াল, যেটা বিষন্নতা
আমি পিছনে তাকাই না, কিন্তু পিঠ দিয়ে থাকি
কাঁচের জানালার ওপাশে বৃষ্টি, ধরি না
অথচ মনে মনে বৃষ্টি’র কথা ভাবি।
তোমার পায়ের কাছে এখন জলের বাস
তোমার পায়ের কাছে এখন একটা রঙিন মাছ
জলকেলি করে তুমি মাছেদের সাথে খেল
মাছেড়াও দারুন সাঁতারু, একটু উষ্ণতা পেল।
এইসব দৃস্স কিন্তু কাঁচের ওপাশে ভেসে উঠে
দৃশ্যগুলন আস্তে আস্তে দৃষ্টিগোচর হয়
হঠাত্‍ তাকিয়ে দেখি পিছনে আমার দেয়ালটা নেই
ছোটবেলার লেখা রচনা গুলন যত্নে পড়ে আছে।
যেভাবে আমরা সবাই বলে থাকি এবার বর্ষা ভাল হয়েছে
আর আমি বলি অন্য কথা
“সেই বছর অনেক বসন্ত ছিল,
সেই বছর অনেক অনেক বসন্ত বাতাস ছিল”