কবিতা

শহরের জঞ্জালে প্রজাপতিরা উড়ে যায়, নাগরিক বিষময় পথ অবাক বিস্ময়; একটু থেমে থেমে নিজের অবয়ব দেখে নাকি দেখে না, চোখ বুঝে ভাবে পৃথিবীর যাবতীয় মধ্যাকর্ষণ শহরের এসে একটু অন্য সূত্রে […]

প্রথম বৃষ্টির মতো, চিরচেনা এবং অচেনা তবুও মেঘের কথা ভাবি, ঝরের গুঞ্জন আমাদের পথের অনেক অজানা বাঁকে পায়ে হেঁটে অথবা গড়িয়ে যাই সামনের দিকে এ জীবন শেষে, পথের শেষে, সময়ের […]

“ঘুমোও তুমি, ঘুমোও তুমি” বলছে না কেউ হঠাৎ করে? কেউ আমাকে ডাকছে না কেন, আসতে বলে অনেক ভোরে? এসব কথা ভাবতে ভাবতে সূর্যিমামার উদয় হয় এক্কেবারে মরেই যাব, এই ভাবনারই […]

আমার অক্সিজেন

কী অসম্ভবের দশা, নিশ্বাসের অক্সিজেন কঠিন লোহাকেও মরিচা ফেলে দেয়; যারা নিশ্বাস নিয়ে স্বপ্ন দেখি বা দেখাই লৌহ মনকে মরিচা থেকে বাঁচাই, কোথায় জানি বোবা কান্না থেকে যায়। হে আমার […]

বন্ধ ঘরের অন্ধকারে একলা নিঝুম রাত্রিবেলা কে এসে আজ জ্বালবে আলো কে দিবে ফুল প্রভাত বেলা? আমার আকাশ সেই তো আছে আগের মতোই উড়ন্ত মেঘ হথাত কোথায় দমকা হাওয়ায় একলা […]

না একটি বাক্য

“না” এই একটি ধ্বণি বা শব্দ এখন বাক্য; আমি না বাক্যেই বলে দিতে পারি এ রায় আমি মানি না। যদি ভাবো আমি বিড়াল, আদরের নরম পরশে গুটিশুটি মেরে তোমার পায়ের […]